Saturday, 18 February 2017

Premendra Mitra's Mejokarta : Headpieces

মেজকর্তা-র শীর্ষচিত্র


== এই ব্লগে প্রদর্শিত অপরের রচনাংশ, স্থিরচিত্র বা অলংকরণের কপিরাইট আমাদের নয় ==
পোস্টের বক্তব্য স্পষ্টতর করতে এগুলি সাজানো হচ্ছেকোনও ব্যবসায়িক স্বার্থে নয়



From the 'Blogus' blog.
খেরো খাতায় আবিষ্কৃত মেজকর্তা সিরিজ । স্রষ্টা প্রেমেন্দ্র মিত্র
শিল্পী ।। সুধীর মৈত্র, গৌতম রায়, অজ্ঞাত




********************************************************************************
শ্রী মৃন্ময় মিত্র, শ্রী সুজিত কুণ্ডু, শ্রী শুভজিৎ কুণ্ডু, শ্রী ইন্দ্রনাথ বন্দ্যোপাধ্যায়, শ্রী অমিত সরকার, শ্রী সোমনাথ দাশগুপ্ত-কে কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছে BlOGUS
********************************************************************************



অশরীরীর অন্বেষণ করেন কে ?

বড়দের বেলায় বরদা  
আর ছোটদের ? না ছোড়দা নন । মেজদা-ও নন । 
মেজকর্তা   

বরদা-সিরিজের অশরীরী’ (১৩৩৯) ছিল হঠাৎ-পাওয়া প্রাচীন ডায়রির একটি কিসসা  
মেজকর্তা-র কীর্তিসমূহ নাকি পাওয়া যায় একটি খেরো খাতায় ।
৪৫ নং বাস-এর সিটে পড়ে-থাকা বেওয়ারিশ লাল শালুর পুঁটলিতে ।

১৯৭৬ ।
ততদিনে তাঁর কলমে-গড়া মামাবাবু, ঘনাদা, পরাশর বর্মা স্ব-স্ব ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠিত ।
সত্তরোর্ধ প্রেমেন্দ্র মিত্র মহাশয় তৎসত্ত্বেও তৈরি করলেন আরও এক ব্যতিক্রমী চরিত্র । 
মেজকর্তা কোন্ সময়ের মানুষ , এমনকি তাঁর নামটিও পাঠকের অজানাই থেকে যায়
তবু তাঁর অদ্ভুত শখের সূত্রে অভিনব মেজাজের অলৌকিক গল্প আস্বাদনের সুযোগ হয় ।
মজা-উৎকণ্ঠায় মেশানো । 

মেজকর্তা-কে ‘তেনা-দের’ খবর দেন কে ? 
বটকেষ্ট, নসুরাম দাস, কখনো-বা মুকুন্দরাম (ইনি আবার ওপারের বাসিন্দা) ।


From the 'Blogus' blog.
ভূত শিকারী মেজকর্তা’, ‘ভূত যদি বোকা হয়’ গ্রন্থের প্রচ্ছদ ।
শিল্পী ।। গৌতম রায়, অজ্ঞাত



ভূতশিকারি এই মেজকর্তা-র মৃগয়ার গল্প মোট কটি ?
ভূত শিকারী মেজকর্তা’ (নাথ ব্রাদার্স, বৈশাখ ১৩৮৭) গ্রন্থে ছিল আধ ডজন ।
মেজকর্তার ভৌতিক গল্প’ [পরে ‘ভূত যদি বোকা হয়’] (শৈব্যা প্রকাশন বিভাগ, ১৯৮৬)-তে ন’খানি
ভূত-শিকারি মেজকর্তা এবং...’ (দে’জ পাবলিশিং, ২০০৯) বইতেও তাই ।
কিন্তু না ।
ঊনদশ নয় । একাদশ অন্তত । 

’টি ছাড়াও ধরা পড়ল আরও দু’খানি অগ্রন্থিত কাহিনি
যা লুকোচুরি খেলছিল পুরনো পত্রিকার পৃষ্ঠায়
‘ ‘ভূত যদি ভীতু হয়...’ ’ভুতেদের বিশ্বাস নেই

ক্রমানুসারে যে-কোনো সিরিজ পড়বার মজাই আলাদা ।
কিন্তু মেজকর্তা-কেন্দ্রিক রচনাগুচ্ছের পয়লা প্রকাশকাল মিলবে কোথায় ?
সেই ভাবনা থেকেই BlOGUS  ব্লগের এই পোস্ট ।
আলোচনা – বিশ্লেষণ নয় ।
রইল এগারোটি গল্পের উৎসসঙ্গে পত্রিকায় প্রথম প্রকাশিত শীর্ষচিত্র
সেরা সব শিল্পীর তুলিতে । 

-------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------

প্রেমেন্দ্র মিত্র রচিত মেজকর্তা-সিরিজ (সালানুক্রমিক) :
০১) ‘তেনা-রা’ - ‘আনন্দমেলা’, বৈশাখ ১৩৮৩ 
০২) মেজকর্তার খেরোখাতা - ‘আনন্দমেলা পূজাবার্ষিকী’, ১৩৮৩ 
০৩) মাথায় চন্দ্রবিন্দু - ‘শারদীয়া কিশোর ভারতী’, ১৩৮৩ 
০৪) ভূত-শিকারী মেজকর্তা - ‘আনন্দমেলা পূজাবার্ষিকী’, ১৩৮৪ 
০৫) ভূতেরা বড় মিথ্যুক - ‘আনন্দমেলা’, আশ্বিন ১৩৮৫ 
০৬) ভূত যদি ভুলো হয় - ‘শারদীয়া কিশোর ভারতী’, ১৩৮৫ 
০৭) ভূত যদি ভক্ত হয় - ‘আনন্দমেলা পূজাবার্ষিকী’, ১৩৮৭ 
০৮) ‘ভূত যদি ভীতু হয়...’ - ‘শারদীয়া কিশোর ভারতী’, ১৩৮৭  [‘ভূত-শিকারি মেজকর্তা এবং...’ (দে’জ পাবলিশিং, ২০০৯) গ্রন্থে এই গল্পটি সংকলিত হয়নি । ] 
০৯) ভূত যদি রসিক হয় - ‘সবজান্তা মজারু’, জানুয়ারি ১৯৮৩ 
১০) ভূতেদের বিশ্বাস নেই - ‘পক্ষিরাজ’, এপ্রিল – মে ১৯৮৩  [‘ভূত-শিকারি মেজকর্তা এবং...’ (দে’জ পাবলিশিং, ২০০৯) গ্রন্থে এই গল্পটি সংকলিত হয়নি । ] 
১১) ‘ভূত যদি বোকা হয়’ - ‘শারদীয় পক্ষিরাজ’, ১৩৯১ 

-------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------

মেজকর্তা-সিরিজের প্রথম প্রকাশিত শীর্ষচিত্র :

From the 'Blogus' blog.
‘তেনা-রা’ -
‘আনন্দমেলা’, বৈশাখ ১৩৮৩
 ।
শিল্পী ।। সুধীর মৈত্র
-----------------------------------------------------

From the 'Blogus' blog.
মেজকর্তার খেরোখাতা -
‘আনন্দমেলা পূজাবার্ষিকী’, ১৩৮৩

শিল্পী ।। শুভাপ্রসন্ন ভট্টাচার্য
-----------------------------------------------------

From the 'Blogus' blog.
মাথায় চন্দ্রবিন্দু -
‘শারদীয়া কিশোর ভারতী’, ১৩৮৩

শিল্পী ।। সূর্য রায়
-----------------------------------------------------

From the 'Blogus' blog.
ভূত-শিকারী মেজকর্তা -
‘আনন্দমেলা পূজাবার্ষিকী’, ১৩৮৪

শিল্পী ।। সুধীর মৈত্র
-----------------------------------------------------

From the 'Blogus' blog.
ভূতেরা বড় মিথ্যুক -
‘আনন্দমেলা’, আশ্বিন ১৩৮৫

শিল্পী ।। বিমল দাস
-----------------------------------------------------

From the 'Blogus' blog.
ভূত যদি ভুলো হয় -
‘শারদীয়া কিশোর ভারতী’, ১৩৮৫

শিল্পী ।। অজ্ঞাত
-----------------------------------------------------

From the 'Blogus' blog.
ভূত যদি ভক্ত হয় -
‘আনন্দমেলা পূজাবার্ষিকী’, ১৩৮৭

শিল্পী ।। সমীর সরকার
-----------------------------------------------------

From the 'Blogus' blog.
‘ভূত যদি ভীতু হয়...’ -
‘শারদীয়া কিশোর ভারতী’, ১৩৮৭

শিল্পী ।। অজ্ঞাত
ভূত-শিকারি মেজকর্তা এবং...
(দে’জ পাবলিশিং, ২০০৯)
গ্রন্থে এই গল্পটি সংকলিত হয়নি ।
-----------------------------------------------------

From the 'Blogus' blog.
ভূত যদি রসিক হয় -
‘সবজান্তা মজারু’, জানুয়ারি ১৯৮৩

শিল্পী ।। অজ্ঞাত
প্রসঙ্গত, ‘সবজান্তা মজারু’ পত্রিকায় ‘ভূত যদি রসিক হয়’ গল্পের সঙ্গে ছাপা হয়েছিল এই অভিনব ছড়া :

From the 'Blogus' blog.
‘সবজান্তা মজারু’, জানুয়ারি ১৯৮৩
শিল্পী ।। অজ্ঞাত
-----------------------------------------------------

From the 'Blogus' blog.
ভূতেদের বিশ্বাস নেই -
‘পক্ষিরাজ’, এপ্রিল – মে ১৯৮৩

শিল্পী ।। অজ্ঞাত (সম্ভবত ধ্রুব রায়)
ভূত-শিকারি মেজকর্তা এবং...
(দে’জ পাবলিশিং, ২০০৯)
গ্রন্থে এই গল্পটি সংকলিত হয়নি ।
-----------------------------------------------------

From the 'Blogus' blog.
‘ভূত যদি বোকা হয়’ -
‘শারদীয় পক্ষিরাজ’, ১৩৯১

শিল্পী ।। অজ্ঞাত (সম্ভবত ধ্রুব রায়)


------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------- 

= ‘প্রেতপুরী’ (১৯১৫) গল্পে শরদিন্দু বন্দ্যোপাধ্যায়-সৃষ্ট ভূতান্বেষী বরদা-র আবির্ভাব ।
একে-একে লেখা হয় ‘রক্ত-খদ্যোত’ (১৯২৯), ‘টিকটিকির ডিম’ (১৩৩৬), ‘মরণ ভোমরা’ (রচনা -  ১৩৩৮; প্রকাশ - ‘মাসিক বসুমতী’, কার্ত্তিক ১৩৩৯),
অশরীরী’ (১৩৩৯), ‘সবুজ চশমা’ (প্রকাশ - ‘মাসিক বসুমতী’, ভাদ্র ১৩৪০), ‘বহুরূপী’ (১৩৪৪), ‘প্রতিধ্বনি’ (১৩৪৫), ‘দেহান্তর’ (১৩৫৬), ‘নীলকর’ (১৩৬৫), ‘মালকোষ’ (১৯৬২) ইত্যাদি কাহিনি ।
 

= ভিন্ন স্বাদের হলেও, সত্যজিৎ রায়-এর প্রোফেসর ত্রিলোকেশ্বর শঙ্কু-র গল্পগুলিও তাই ।
প্রথম কাহিনি – ‘ব্যোমযাত্রীর ডায়রি’, ‘সন্দেশ’, আশ্বিন, কার্ত্তিক, অগ্রহায়ণ ১৩৬৮
এটি বাদ দিলে, লেখক-আবিষ্কৃত শঙ্কু-র ডায়রিগুচ্ছের উলেখ বোধহয় আর একটি গল্পেই আছে :
প্রোফেসর শঙ্কু ও হাড়, ‘সন্দেশ’, পৌষ ১৩৭০ । 
অপরদিকে, মেজকর্তা সিরিজের প্রত্যেকটি রচনায় কিন্তু প্রেমেন্দ্র মিত্র মনে করিয়ে দিয়েছেন, খেরো খাতা কীভাবে, কোথা থেকে খুঁজে পাওয়া যায় ।

= লেখকের অনুমান, উনিশ শতকের (‘ভূত যদি ভীতু হয়...’)  

= তথ্যসূত্র – ‘সম্পাদকীয়’, সুরজিৎ দাশগুপ্ত, ভূত-শিকারি মেজকর্তা এবং...’ (দে’জ পাবলিশিং, ২০০৯) । 
-------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------

4 comments:

  1. শুধু মূূল্যবান বললে এই পোস্টের যথার্থ বিচার হয়না। এটি মহামূূল্যবান। দে'জ থেকে প্রেমেন্দ্র মিত্রের ভূত-শিকারী মেজকর্তার গল্পগুলো সংকলিত হয়ে বেরোনোর সময় এই তথ্যগুলো তাতে থাকা বাধ্যতামূলক ছিল। ব্লগাস-এর সৌজন্যে এগুলো সামনে এল, এটাই আমাদের পক্ষে বিশাল প্রাপ্তি।

    ReplyDelete
    Replies
    1. অশেষ ধন্যবাদ ঋজু বাবু !
      প্রথম-প্রকাশ তথ্যের পাশাপাশি অগ্রন্থিত কাহিনিদুটিও সংকলনভুক্ত হওয়া উচিত বলে আমাদের বিনীত ধারণা ।

      Delete
  2. আমার মনে হয় দেজ কতৃপক্ষকে এটা জানানো উচিত।

    ReplyDelete
    Replies
    1. প্রেমেন্দ্র বাবু-র পুত্র মৃন্ময় মিত্র মহাশয় আমাদের বলেছিলেন, খুঁজে-পাওয়া অপ্রকাশিত গল্পদুটি দে'জ-কে পাঠিয়ে দিতে ।
      সেইমত করা হয়েছিল বছর দেড়েক আগে ।

      Delete